May 26, 2024 7:50 am

১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

May 26, 2024 7:50 am

১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

Governor CV Ananda Bose:'কাজ করে যান, অন্যদিকে দেখার দরকার নেই', ভার্চুয়াল বৈঠকে নিযুক্ত উপাচার্যদের বার্তা রাজ্যপালের

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Pocket
WhatsApp
Business newspaper article

কৃষ্ণেন্দু অধিকারী, কলকাতা: ‘নিজেদের কাজ করে যান, অন্যদিকে দেখার দরকার নেই’, নিযুক্ত উপাচার্যদের (Vice Chancellor) সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকে বললেন আচার্য ও রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস (Governor CV Ananda Bose)। কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে কী সমস্যা, আলাদা করে উপাচার্যদের কাছে শোনেন আচার্য। প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যান্টি র্যাগিংর কমিটির কাজের তদারকি করবে রাজভবন, ঠিক হয় বৈঠকে, সূত্রের খবর। সঠিক সময়ে ফলপ্রকাশের ওপর জোর দেন রাজ্যপাল। উচ্চশিক্ষায় গবেষণার যৌথ প্রোগ্রামের বিষয়ে কতটা অগ্রগতি, উপাচার্যদের কাছ থেকে খোঁজ নেন রাজ্যপাল।

প্রেক্ষাপট…
উপাচার্য নিয়োগ ঘিরে রাজভবন-রাজ্যপাল সংঘাত চরমে উঠেছে। তার মধ্যে রাজ্যপালকে কটাক্ষ করে সাদা হাতি বলেছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। সরাসরি তার জবাব না দিয়ে রাজ্যপাল ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য, অভিযোগ যদি তাঁর সাংবিধানিক সহকর্মী, মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে আসে, তখনই তা গ্রহণযোগ্য হবে। সেই নিয়ে সরগরম হয়ে ওঠে রাজ্য-রাজনীতি। বিদেশ সফর কেমন হয়েছে, তা জানতে চেয়ে গত শনিবারই মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছিলেন রাজ্যপাল। রাজভবন সূত্রের খবর, চিঠি তিনি নিজেই লেখেন। সব মিলিয়ে হঠাৎ সৌজন্য, আবার আচমকা সংঘাতের ‘রোলার কোস্টার’ হয়ে উঠেছে রাজভবন-নবান্নের সম্পর্ক। অথচ একেবারে গোড়ার দিকে, সি ভি আনন্দ বোস রাজ্যপাল হয়ে বাংলায় আসার পরে, নবান্ন ও রাজভবনের মধ্যে সৌজন্যেরই সম্পর্ক দেখেছিল সবাই। কিন্তু, পঞ্চায়েত ভোটে হিংসা, রাজভবনে পিস রুম খোলা, বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আর্থিক রিপোর্ট চেয়ে পাঠানো, অস্থায়ী উপাচার্য নিয়োগ – একের পর এক ইস্যুতে রাজ্যপালের তৎপরতার কড়া সমালোচনার পথেই হেঁটেছে সরকারপক্ষ। বিশেষ করে রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে স্থায়ী উপাচার্য নিয়োগ নিয়ে সংঘাত তো সপ্তমে উঠেছে।যার জেরে, রাজ্যপালের সমালোচনা করতে গিয়ে বাছাবাছা বিশেষণও ব্যবহার করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু!আর তা নিয়েই শাসকপক্ষের কড়া সমালোচনা করেছে গেরুয়া ব্রিগেড।
প্রসঙ্গত, আচার্য-রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোসের বিরুদ্ধে একতরফা উপাচার্য নিয়োগের যে অভিযোগ রাজ্য সরকার করেছিল সেই অভিযোগের বিষয়ে গত অগাস্টের শুনানিতে কোনও হস্তক্ষেপ করেনি সুপ্রিম কোর্ট।তবে শীর্ষ আদালত তার পর্যবেক্ষণে উল্লেখ করে, স্বচ্ছতা বজায় রেখে নিয়োগ প্রক্রিয়া হওয়া উচিত। আচার্য নাকি রাজ্য সরকার, কে সবচেয়ে দক্ষ, আমরা তা নিয়ে ভাবিত নই। কিন্তু প্রতিষ্ঠানের স্বার্থে কেন, উভয়ে মিলে সমস্যার সমাধান করতে পারলেন না? সমস্ত যোগ্য প্রার্থীদের আবেদনের ভিত্তিতে, যোগ্যতমকে বেছে নেওয়া হোক।

আরও পড়ুন:’পুলিশ কোয়ার্টারে মহিলাদের দেখে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করতে বলা হয় নদিয়ার পড়ুয়াকে’ যাদবপুরে অভ্যন্তরীণ তদন্ত কমিটির রিপোর্টে চাঞ্চল্যকর তথ্য

Education Loan Information:
Calculate Education Loan EMI

source

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Pocket
WhatsApp

Related News

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top