June 17, 2024 5:54 am

৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

June 17, 2024 5:54 am

৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

West Bengal governor and Shah Jahan: সবার জন্য শিক্ষা’, শাহজাহান গ্রেপ্তারের পরেই ফের সরব রাজ্যপাল। ৭২ ঘণ্টা সময় দিয়েছিলেন তিনি।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Pocket
WhatsApp

Education for all’, after the arrest of Shah Jahan, Sarab Governor again. He gave 72 hours.

রাজ্য

দ্যা হোয়াইট বাংলা ডিজিটাল ডেস্ক: ৫৬ দিনের মাথায় মিনাখার বামুনপুকুর এলাকা তাকে সন্দেশখালীর বেতার বাদশা শেখ শাহজাহান গ্রেপ্তার হওয়ার পরেই বৃহস্পতিবার মুখ খুললেন রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস। এই গ্রেপ্তারি থেকে সকলের শিক্ষা নেওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার রাজ্যপাল বোস জানায় “আমি বলেছিলাম সুড়ঙ্গের শেষে আলো আছে। এটাই গণতন্ত্র। আমরা এটার জন্য অপেক্ষা করেছিলাম। আর হলও তাই। এটা সকলের জন্য শিক্ষা। আশা রাখি বাংলায় আইনশৃঙ্খলার নতুন ভোর হবে। আমি গর্বিত যে ভালো কিছু ঘটল।”

উল্লেখ্য, গত ১২ ফেব্রুয়ারি সন্দেশখালিতে যান রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস। গ্রামে গ্রামে ঘুরে অভাব অভিযোগের কথা শোনেন তিনি। তবে তাকে গ্রামবাসীর বাধার মুখেও পড়তে হয়েছিল। গ্রামবাসীদের অভাব অভিযোগ শুনে সরাসরি সেখান থেকে দিল্লী উড়ে যান। দিল্লিতে সন্দেশখালীর পরিস্থিতি নিয়ে কি রিপোর্ট দিয়েছিলেন তা এখনো অস্পষ্ট। সন্দেশখালির নির্যাতিতাদের জন্য রাজভবনে ‘পিস হোম’ও খুলেছিলেন রাজ্যপাল। সম্প্রতি কলকাতা হাই কোর্টের নির্দেশের পরেই শাহজাহানকে গ্রেপ্তারিতে ৭২ ঘণ্টার ডেডলাইন বেঁধে দিয়েছিলেন সি ভি আনন্দ বোস। তার মাঝেই গ্রেপ্তার শেখ শাহজাহান। সুবিচার হয়েছে বলেই দাবি রাজ্যপালের।

তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ জানিয়েছিলেন আশা প্রকাশ করেছিলাম শেখ শাহাজান গ্রেপ্তার হবে পুলিশ তার দায়িত্ব পালন করেছে। বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার অভিযোগ করেছেন শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের জন্যই এতদিন আত্মগোপন করেছিল শেখ শাহজাহান। সিপিআইএমের বর্শিয়ান নেতা সুজন চক্রবর্তী এই প্রসঙ্গে বলেন শেখ শাহাজাহান সন্দেশখালিতেই ছিল এবং সেটা পুলিশের ঘেরাটা পেয়েছিল।

দক্ষিণ বঙ্গ এডিজি, সুপ্রতিম সরকার এদিন সকালে সাংবাদিক সম্মেলন করে শেখ শাহাজাহান গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে বলেন আইনি বাধ্যবাধকতার কারণেই গ্রেফতার করতে সমস্যা হয়েছিল শেখ শাহাজাহানকে। শুধু তাই নয় সন্দেশকালীর সিপিআইএমের প্রাক্তন বিধায়ক নিরাপদ সরদার গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে বলেন আগে গ্রেপ্তার পরে এফ আই আর।

কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ পেয়েই সন্দেশখারীর হালদারপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এবং জেলিয়াখালি পরিদর্শনে যাবার অনুপ্রন্টটি পেয়েছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতার শুভেন্দু অধিকারী। হাইকোর্টের নির্দেশ পাবার পরেও পুলিশি বাধার মুখে পড়তে হয় শুভেন্দু অধিকারীকে।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Pocket
WhatsApp

Related News

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top