June 17, 2024 3:53 am

৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

June 17, 2024 3:53 am

৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২৪ ঘণ্টা কাটার আগেই হাইকোর্টে আবেদন প্রত্যাহার শেখ শাহজাহানের

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Pocket
WhatsApp
#high# #court# #Shahjahan# #get# #relief

Sheikh Shahjahan withdrew the application in the High Court before 24 hours

রাজ্য

দ্যা হোয়াইট বাংলা ডিজিটাল ডেস্ক : গতকাল বিচারপতির প্রশ্নের মুখে পড়েন শেখ শাহজাহানের আইনজীবী। আজ মামলা প্রত্যাহার করে নিলেন।সন্দেশখালি ইডি আধিকারিকদের উপরে হামলার ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে কেস ডায়েরি জমা দিল আদালতে।রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল জানালেন এই ঘটনায় মোট গ্রেফতার ৭। ‘পথ্যার সে সারপে মারো…’ ওই দিনের ঘটনায় এই শব্দ ব্যবহার করেছিল ইডি। কেস ডায়েরিতে পুলিশ উল্লেখ্য করেছে।

বিচারপতি জয় সেনগুপ্ত – অনেক দিন হয়ে গেল পুলিশ মূল মাস্টারমাইন্ড শেখ শাহাজাহানকে কেন গ্রেফতার করতে পারলো না। সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে পুলিশ কি ব্যবস্থা নিয়েছে।

অ্যাডভোকেট জেনারেল- ঠিক কি হয়েছিল সঠিক কোন ভিডিও ফুটেজ নেই।


বিচারপতি- হটাৎ কিছু ঘটে গেলে তার ভিডিও ফুটেজ পাওয়াটা কঠিন সেটা আমি মানছি। কিন্তু তা বলে পুলিশ কি চুপ করে বসে থাকবে? পুলিশকে বলুন ফুটেজ জোগাড় করতে। মূল অভিযুক্ত এখন গ্রেফতার হয়নি, পুলিশ কি করছে? এজির উদ্দেশ্যে বিচারপতি..

৫ই জানুয়ারি সকাল ১১.৩০মিনিটে ঘটনাটি ঘটেছে বলে দাবি রাজ্যের।… এজির উদ্দেশ্যে বিচারপতি বলেন গতকাল আপনি অন্য একটা সময় বলেছিলেন। এজি জানায় গতকাল কেস ডায়েরি না দেখে বলেছিলেন।

পুলিশ গেল শেখ শাহজাহানের বাড়িতে। বাইরে তালা ঝোলানো দেখে বাড়ি চলে গেলেন? পুলিশ প্রয়োজন মনে করলো না বাড়ির ভিতরে কেউ আছেন কিনা??? যদি কেউ না থেকে থাকে তাহলে পুলিশ কেন সিল করলো না।

শেখ শাহজাহানের আইনজীবীর উদ্দেশ্যে বিচারপতি বলেন – “শেখ শাহজাহান কত খানি প্রভাবশালী তা ইডি আধিকারিকদের ওপর আক্রমণের ঘটনায় স্পষ্ট… বিচারপতি “
তিনি এতটাই প্রভাবশালী যে রাজ্যের পুলিশ তার নাগাল পাচ্ছে না..

ইডির আইনজীবী:, রাজ্য সরকার বলছে এটা একটা ছোট ঘটনা.. এটা কোন ছোট ঘটনা নয়। পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। ঘটনায় ১০দিন হয়ে গেল আজও রাজ্য পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে পারেনি… তাহলে বিচারপতি বুঝতেই পারছেন তিনি কতটা প্রভাবশালী।

বিচারপতি: যখন পুলিশ তল্লাশি অভিযান গেল ঘটনার পর। অভিযুক্তকে না পেয়ে পুলিশকি শেখ শাহজাহানের মোবাইলের টাওয়ার লোকেশন দেখে ছিল। সেই বাড়িতে না থাকলেও আশেপাশে তো ছিল?

পুলিশ বা ইডি আধিকারিকরা তার মোবাইল লোকেশন দেখেছিল কেন্দ্র এবং রাজ্যের আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে..
ইডি: রাজ্য পুলিশ ইচ্ছাকৃত ভাবেই শেখ শাহজাহানকে পালাতে সাহায্য করেছে বলে দাবি। কারণ CRPF পক্ষে লোকালয় চেনা সম্ভব নয়। পুলিশ কোন সাহায্যই করেনিবলে অভিযোগ।

শেখ শাহজাহানের বাড়িতে যাওয়ার আগেই তার কাছে খবর পৌঁছে যায়… কিন্তু কি ভাবে। ইডি আইনজীবী রাজু: সেখানে যাচ্ছে সেটা শুধুমাত্র পুলিশের কাছেই খবর ছিল। খবর পৌঁছে যাওয়ার পরেই শেখ শাহজাহানও তার দলবল বলে ওই দিন এই ঘটনা ঘটিয়েছে। প্রত্যেকের কাছে লাঠি, ইট ছিল।

এই ঘটনায় বার বার পুলিশ দর্শকের ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ ইডির।

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Pocket
WhatsApp

Related News

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top