June 19, 2024 11:55 am

৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

June 19, 2024 11:55 am

৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কংগ্রেসের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক নষ্ট করেছে সিপিএম। মুর্শিদাবাদে এমন‌ই মারাত্মক অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Pocket
WhatsApp
#metro#rail#authority#claimed#never#said#demolation

West Bengal,

দ্যা হোয়াইট বাংলা ডিজিটাল ডেস্ক:West Bengal, chief minister Mamta Banerjee

লোআসন্ন ২০২৪ য়ের লোকসভা নির্বাচনে এ রাজ্যে বিরোধী ইন্ডিয়া জোট যে আর তেমন দানা বাঁধছে না, সেটা এক প্রকার বলাই যায়। কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস বা সিপিএমের নেতাদের সাম্প্রতিক বক্তব্যে তা এক প্রকার পরিষ্কার। বুধবার কংগ্রেসের সঙ্গে জোট ভাঙ্গার দায় সরাসরি সিপিএমের কাঁধেই ঠেলে দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন অধীরের খাস তালুকে দাঁড়িয়ে তৃণমূল সুপ্রিমোর পরিষ্কার বক্তব্যে সেটাই বোঝা গেল।

#cpm#sujon#chakroborty#sarcasm#cm#message#
‘Trinamool will fight alone to defeat BJP’ – Chief Minister’s message is ‘ridiculous’, says CPM leader Sujan Chakraborty

এরাজ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধেই লোকসভার নির্বাচনে লড়াই করতে চেয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। অন্তত তাদের নেতাদের এমনটাই দাবি। রাজ্যে কংগ্রেসের অবস্থান ততটা শক্ত না হলেও তাদের সঙ্গেই জোট করতে রাজি ছিল রাজ্যের শাসক দল। কিন্তু জোড়া ফুল শিবিরের অভিযোগ ছিল কংগ্রেস-সিপিএম মাখামাখি নিয়ে। যে জোটে সিপিএম থাকবে সেই জোটে তৃণমূলের থাকা এক প্রকার অসম্ভব। তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর আগেও দলীয় বৈঠকে অভিযোগ করেছিলেন ইন্ডিয়া জোটের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শরিক দল হলেও তৃণমূল কংগ্রেসকে প্রাপ্য মর্যাদা না দিয়ে কংগ্রেস বরং অনেক বেশি মর্যাদা দিচ্ছে সিপিএম, আরএসপি বা সিপিআইকে। বুধবার অবশ্য সেই প্রসঙ্গকে আরো বেশ কিছুটা টেনে নিয়ে গিয়ে এবার সরাসরি কংগ্রেসের সঙ্গে জোট ভাঙ্গার দায় সিপিএমের দিকেই ঠেলে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার বহরমপুরে সরকারি পরিষেবা প্রদানকারী সভায় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “কংগ্রেসের সঙ্গে আমাদের আন্ডারস্ট্যান্ডিং ভালই ছিল। যদি কেউ খারাপ করে থাকে তাহলে তার নাম সিপিএম। সিপিএম এখন বিজেপির সবচেয়ে বড় দালাল।” লক্ষ্যণীয়, এদিন কংগ্রেস তাদের অন্যতম গড় বলে দাবি করে যে জেলাকে, সেই জেলা সদর বহরমপুরে দাঁড়িয়ে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে খুব একটা বেশি বিষোদগার করেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার আক্রমণের লক্ষ্যই ছিল সিপিএম এবং বিজেপি। এমনকি যে অধীর চৌধুরীর সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রায় আদায় কাঁচকলা সম্পর্ক সেই অধীর চৌধুরী প্রসঙ্গে কোনো রকম -রা কাটেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ প্রসঙ্গে জেলা কংগ্রেসে অধীর চৌধুরীর খুব কাছের এক নেতা বললেন, “কংগ্রেস কি কচি খোকা নাকি ? আমাদের সিপিএম ভুল বোঝালো আর আমরা সেটাকেই সত্যি বলে মেনে নিলাম? আসলে উনি জোট ভাঙ্গার দায় ছেড়ে ফেলতে চাইছেন।” এই প্রসঙ্গে জেলা সিপিএম সম্পাদক মন্ডলীর এক সদস্যের বক্তব্য, “দেশের মানুষ বিশেষ করে এ রাজ্যের মানুষ খুব ভালো করেই বুঝতে পারছে বিজেপির আসল দালাল কে ? কে এরাজ্যে বিজেপি কে ডেকে এনেছে ? কে এ রাজ্যে বিজেপিকে বাড়তে সাহায্য করছে ?”

Facebook
Twitter
LinkedIn
Pinterest
Pocket
WhatsApp

Related News

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top